Main Menu

রাজৈরে মজিবুরের খুনিদের বিচার দাবীতে সড়ক অবরোধ-বিক্ষোভ-মানববন্ধন

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার আমগ্রাম ইউনিয়নের মঠবাড়ী গ্রামে পূর্ব শত্রুতা ও ইউ,পি নির্বাচনের জের ধরে গত মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে মসজিদের ভিতর ঢুকে মজিবুরকে কুপিয়ে হত্যার প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী।

মজিবারের নৃংশস এই হত্যার বিচার ও হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে রোববার সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যাপী আমগ্রাম-সানেরপাড় সড়কে অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে নিহততের স্বজন ও এলাকাবাসি। এসময় এলাকার কয়েকশত নারী ও পুরুষ সড়কের দুই পাশে অবস্থান করে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।

মানববন্ধন চলাকালে হত্যাকারী ও হত্যাকারী ইন্ধোনদা তাদের অবিলন্বে ফাঁসির দাবী করে বক্তব্য রাখেন নিহত মজিবুরের স্ত্রী নাছিমা বেগম, নাসিমা আরো বলেন আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে আমি তাদের ফাঁসি চাই।
মজিবুরের মেয়ে আন্নি বলেন, আমার বাবাকে যারা হত্যা করেছে তাদেরকে ইন্ধোনদাসহ অবিলন্বে ফাঁসির দাবী কামনা করছি।
মজিবরের ছেলে রুবেল বলেন,আমার বাবা মঙ্গলবার মাগরিবের নামাজ পড়ার সময় মসজিদের ভিতরে ঢুকে জুয়েল,লিংকন,আশরাফ,মাহবুব,কাদের,আলগীর,আলী,নূও মোহাম্মদসহ অনেকেই তাদের দ্রুত গ্রেফতাক করে ফাঁসির দাবী জানাই।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন এলাকার রেজাউল, শাহিন, সুমন, ও সবর্না প্রমুখ।

নিহত মজিবুরের স্ত্রী নাছিমা বেগম বাদী হয়ে জুয়েল মেম্বারকে প্রধান আসামী করে ৪২জনের নাম উল্লেখ করে রাজৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

নিহত মজিবর বেপারীর সাথে একই এলাকার তার ফুফাতো ভাই জুয়েল ও মামাতো ভাই আশরাফ আলী ও লিংকন মোল্লা মধ্যে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। মঙ্গলবার মাগরিবের নামাজ পড়ার সময় মসজিদের ভিতর জুতা রাখা নিয়ে মজিবুরের ছেলে রুবেল বেপারীর সাথে লিংকনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই জের ধরে লিংকন ও আশরাফ লোকজন নিয়ে মজিবুরকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

তারাবির নামাজ পড়তে মজিবুর মসজিদে আসলে তারা মসজিদের ভিতরে প্রবেশ করে পিছন দিক থেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কোপায়। তার চিৎকারে এলাকাবাসি এগিয়ে আসলে লিংকন তার লোকজন নিয়ে সরে পড়ে। গুরুতর রক্তাক্ত আহত অবস্থায় রাজৈর হাসপাতালে নেয়ার পথে মজিবর মারা যায়।

রাজৈর থানার ওসি শাহজাহান মিয়া জানান, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে নিহত মজিবরের স্ত্রী নাছিমা বেগম বাদী হয়ে জুয়েল মেম্বরকে প্রধান আসামী করে ৪২জনের নাম উলে­খ করে রাজৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ আবদুল কাদের নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।






News Room - Click for call