Main Menu

এলাকায় উত্তেজনা

মাদারীপুরে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩০, আটক ১১

মাদারীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থদের মাঝে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩০জন আহত হয়েছে। এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১১জনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী হয়েছে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পদক কাজল কৃষ্ণ দে।
অপর দিকে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন সাবেক নৌ মন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ শাহাজান খানের ছোট ভাই ওবায়দুর রহমান কালু খান।

পোষ্টার লাগানোকে কেন্দ্র করে সদর উপজেলা পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছবাড়িয়া এলাকায় বুধবার সকালে এই দুগ্রুপের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায় দুই গ্রুপ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে দুই পক্ষের ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এই ঘটনায় আহতদের খোজখবর নিতে দুপুরে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন মাদারীপুর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাদারীপুর পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ। এসময় তিনি হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে ঘুরে আহতদের খোজখবর নেন।

মাদারীপুর সদর হাসাপাতলে মেডিকেল অফিসার ইমরানুর রহমান সনেট বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৮জনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আমরা সামধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি।

মাদারীপুর সদর থানার এসআই লুৎফর রহমান বলেন, গাছবাড়িয়া এলাকা ও হাসপাতাল এলাকায উত্তেজনা থাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।






News Room - Click for call