1. admin@amaderpotrika.com : admin :
  2. anisurladla71@gmail.com : Anisur :
  3. info.popularhostbd@gmail.com : PopularHostBD :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ ও আদিতমারী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলেন যারা লালমনিরহাটে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দত্তক নিয়ে মেয়ের মা হলেন পরীমনি লালমনিরহাটে দুনীর্তি প্রতিরোধ ও সচেতনতা বিষয়ক র‌্যালী ও বির্তক প্রতিযোগিতা ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথম ধাপের ১৫০ উপজেলায় ৩ দিন বাইক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা লালমনিরহাটের সাপ্টিবাড়িতে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন- মাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা জাতীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় লালমনিরহাটে ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা সংসদ সদস্যরা প্রার্থীর হয়ে প্রচারনা করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে-লালমনিরহাটে ইসি রাশেদা সুলতানা ভোট দিতে একসঙ্গে ঢালিউডের ‘তিন কন্যা’, জানালেন প্রত্যাশা গত নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি চান না আসাদুজ্জামান নূর

আবাহনীকে গুঁড়িয়ে স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে বসুন্ধরা কিংস

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১০৭ বার পড়া হয়েছে

স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালের জমজমাট লড়াইয়ে আবাহনীকে ৪-০ গোলে গুঁড়িয়ে ফাইনালে নাম লিখিয়েছে বসুন্ধরা কিংস। গোলশূন্য প্রথামার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে পাত্তাই পায়নি আবাহনী।

টানা চতুর্থ স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে নাম লেখালো আসরের বসুন্ধরা কিংস। নিজেদের মাঠ বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় শুরু থেকে আবাহনীর বিপক্ষে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে কিংসকে চমকে দিয়ে দারুণ এক আক্রমণ আবাহনীর ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ওয়াশিংটন সান্তোসের। বিশ্বনাথ ঘোষের পা থেকে বল কেড়ে বাঁ প্রান্ত ধরে ডান পোস্টে শট নেন তিনি, অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় সেই শট। আট মিনিটে জোনাথন ফার্নান্দেজের শট আটকে দেন বসুন্ধরা গোলরক্ষক শ্রাবণ।

বসুন্ধরা প্রথম আক্রমণ করে ১০ মিনিটে। মিগেল দামাসেনার শট ঠেকান আবাহনী গোলরক্ষক পাপ্পু হোসেন। একই মিনিটে রবসন রবিনহোর চিপও ফিস্ট করে ফেরান তিনি।
২১ মিনিটে কিংসের নিশ্চিত গোল ঠেকান জোনাথন ফার্নান্দেজ। মাঝমাঠ থেকে আবাহনীর এক খেলোয়াড়ের ভুলে একা বল পেয়ে যান শেখ মোরসালিন, হার মানান আবাহনী গোলরক্ষককেও। মোরসালিনের নেওয়া শট জালে জড়ানোর আগে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান কিংসেরই সাবেক মিডফিল্ডার জোনাথন। এরপর দুই দলই একাধিক আক্রমণে গেলেও প্রথামার্ধে গোলের দেখা পায়নি কোনও দলই।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণের ধার বাড়ায় বসুন্ধরা কিংস। বদলে যাওয়া এক দলের সামনে যেন দাঁড়াতেই পারছিল না আবাহনী। ম্যাচে এগিয়ে যেতে খুব বেশি সময় লাগেনি স্বাগতিকদের। ৪৮ মিনিটেই সোহেল রানার গোলে এগিয়ে যায় কিংস। মাঝ মাঠে বল পান সোহেল রানা। কিছুটা এগিয়ে পাস দেন মিগেল দামাসানাকে। ফিরতি পাসে বল পেয়ে জালে জড়াতে ভুল করেননি সোহেল রানা।

৫৩ মিনিটে রাকিবের জোগান দেওয়া বলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন দরিয়েলতন গোমেজ। বক্সের বাইরে আবাহনীর ভুল পাস থেকে বল পান রাকিব। আবাহনীর দুই ফুটবলারকে কাটিয়ে ফার পোস্টে শট নেন রাকিব, সেখান থেকে পা ছুঁইয়ে ব্যাবধান দ্বিগুণ করেন দরিয়েলতন।

৭৭ মিনিটে গোছানো আক্রমণ থেকে ব্যাবধান ৩-০তে নিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস। বক্সের বাঁ-প্রান্ত থেকে সাদ উদ্দিনের ক্রসে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন মিগেল দামাসেনা।

৮৬ মিনিটে বক্সের ভেতর রবসনকে বাজে ট্যাকল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পেনাল্টি থেকে গোল করতে কোনও ভুল করেননি দলের অধিনায়ক। সেই সঙ্গে ঘরের মাঠে অপরাজিত থাকারও রেকর্ডটা আরও একটু বাড়িয়ে নিল কিংস।

ফাইনালে বসুন্ধরার প্রতিপক্ষ মোহামেডান। আগামী ১৮ ডিসেম্বর শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মোহামেডানের বিপক্ষে মাঠে নামবে কোচ অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা।

সংবাদ টি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved
Design BY POPULAR HOST BD