Main Menu

বাগেরহাটে শশুর বাড়ি থেকে জামাইয়ের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেফতার ৩

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার চরকাঠি গ্রামে শশুর বাড়ি থেকে জামাইয়ের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে আলামত জব্দ করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, পাবনা জেলার মিনদাহ গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে মোঃ বিপ্লব মোল্লা(২৫) ও তার স্ত্রী রিনা বেগম(২০), এবং আজীমের স্ত্রী রুবিনা বেগমের ভাই উপজেলার চরকাঠি গ্রামের মৃত মোহাম্মাদ তালুকদারের ছেলে মোঃ সালাউদ্দিন তালুকদার (১৪)।

নিহত মোঃ আজিম সুনামগঞ্জ জেলার তাহেরপুর উপজেলার কাউকান্দি গ্রামের মোঃ মনজুল হকের ছেলে।
সোমবার (৩ মে) দুপুরে বাগেরহাট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রায় এক বছর আগে চরকাঠি গ্রামের মোহাম্মাদ তালুকদারের মেয়ে রুবিনা বেগম (২২) তার জামাই আজিমকে মেহগুনি গাছের ডাল দিয়ে পিটিয়ে এবং নাখ মুখ চেপে হত্যা করে। পরে বিপ্লব ও রিনা বেগমের সহায়তায় মরদেহ ঘরের পাশে মাটিচাপা দিয়ে রাখে। এই ঘটনায় আমরা তিনজনকে আটক করেছি। এছাড়া জড়িত আজিমের স্ত্রী রুবিনা বেগমকে আটকের চেষ্টা চলছে।

পুলিশ জানায়, বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ আফজালের নেতৃত্বে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করিম ও এসআই মোস্তাফিজুর রহমানসহ পুলিশ ফোর্স কৌশলে অভিযান চালিয়ে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার শ্রীপুর বাজার থেকে এই তিন জনকে গ্রেফতার করে।

এর আগে ২৯ মে কচুয়া উপজেলার চরকাঠি গ্রামে গ্রামের মৃত মোহাম্মাদ তালুকদারের ঘরের পাশ থেকে তার জামাইয়ের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরের দিন কচুয়া থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আবুল হাসান ওই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।






News Room - Click for call