Main Menu

বরিশালের মুলাদীতে খাল  দখল করে ভবন নির্মাণ

বরিশাল জেলার মুলাদী উপজেলার বাটামারা ইউনিয়ন ও সফিপুর ইউনিয়নের একাধিক প্রভাবশালীরা প্রকাশ্যে খাল দখল করে বহুতলা পাকা ভবন নির্মাণের মহোৎসবে মেতে উঠেছে। স্থানীয় প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করায় খাল দখলকারীরা এলাকায় জয়ন্তী নদীর থেকে সংযোগ খালের প্রায় কয়েক কিলোমিটার দখলে নিয়ে দোকানঘর ও বসতঘর নির্মাণ করছেন।

বাটামারা ইউনিয়নের নতুন হাট এলাকায় খাল দখল করে ও জাগরানী বাজার এবং আনন্দ বাজার এলাকায় প্রকাশ্যে দোকানের পেছনের অংশ খালের মধ্যে কয়েক শতাংশ জমি দখল করে অবৈধভাবে পাকা বহুতলা ভবন নির্মাণ করেছেন। এবং সরকারি অর্থ ব্যয়ে খাল খননের বরাদ্দ কয়েকটি খাল দখল করেছে।

তার পাশেই সফিপুর ইউনিয়নের আমানতগন্জ বাজারে একই কায়দায় খাল দখল করে বহুতলা ভবন নির্মাণ করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, এভাবে এলাকায় খাল দখলের প্রতিযোগিতা চলতে থাকলে কয়েক গ্রামের খালের অস্তিত্ব হারিয়ে যাবে।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক স্থানীয় ব্যক্তি বলেন, উপজেলা প্রশাসনের সহ পিয়ন থেকে শুরু করে সার্বেয়ারসহ সবাইকে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে ভবন নির্মান করেছে।

মুলাদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাকির হোসেন বলেন, খাল দখলরোধে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন এবং যারা খাল দখল করে বহুতল ভবন নির্মান করে খালের সৌন্দর্য নষ্ট করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্থানীয় জনসাধারনের দাবী, সরকার খাল দখলরোধে জিরো টলারেন্সে কথা থাকলেও এই গুরুত্বপূর্ণ খাল দখলকারীদের কাছ থেকে খাল গুলো কে রক্ষা করতে উপজেলা প্রশাসন ভূমিকা নেবে এমটাই দাবী সাধারন মানুষের।






News Room - Click for call