Main Menu

মাদারীপুরে ১০কোটি টাকার স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে দোকান মালিক উধাও

মাদারীপুরের কালকিনিতে বিভিন্ন গ্রাহকদের বন্দকী প্রায় ১০ কোটি টাকার স্বর্নালঙ্কার নিয়ে বরুন চন্দ্র পাল নামের এক প্রতারক জুয়েলার্স ব্যবসায়ী হঠাৎ করে উধাও হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই দোকানের প্রায় ৩ শতাধিক গ্রাহক আজ সোমবার সকালে দোকানের সামনে অবস্থায় কর্মসুচি পালন করেন। পরে খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থলে এসে ওই দোকানটি সিলগালা করে দিয়েছেন। বরুন বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ভূরঘাটা গ্রামের মঙ্গল কৃষ্ণ পালের ছেলে।

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, পৌর এলাকার মজিদ বাড়ি (ভুরঘাটা) বাজারের স্বর্ন ব্যবসায়ী বরুন চন্দ্র পাল গ্রামীন জুয়েলার্স নামের একটি দোকান খুলে প্রায় ২৮ বছর ধরে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। তার ওই দোকানে বিভিন্ন এলাকার গ্রাহকরা তাকে বিশ্বাস করে তার কাছে স্বর্ণ বন্দক রেখে নগদ অর্থ গ্রহন করতেন। এবং গলার হাড়, রুলি, কানের দুল, আংটি ও চেইনসহ বিভিন্ন রকম জিনিসপত্র তৈরী করার জন্য স্বর্ন জমা রেখেছিলেন।
কিন্তু হঠাৎ করে বরুন চন্দ্র পাল প্রতারনার আশ্রায় নিয়ে সোমবার ভোর রাতে সমস্ত নগদ অর্থ ও স্বর্নালঙ্কার নিয়ে দোকান তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যান। সকালে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে ওই গ্রামীন জুয়েলার্সের মালিক বরুন চন্দ্র পালকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে দোকানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন গ্রাহকরা।

এ খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং দোকানটিকে সিলগালা করে দেন।

ভুক্তভোগী কহিনুর বেগম, মোঃ শাহীন হাওলাদার, ইদ্রিস বেপারী, মোঃ হারুন অর রশিদ ও রেনু বেগমসহ অগনিত গ্রাহক কান্না জড়িত কন্ঠে অভিযোগ করে বলেন, গ্রামীন জুয়েলার্সের মালিক বরুন চন্দ্র আমাদের সকল স্বর্ন ও নগদ টাকা পয়সা নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমরা এখন পথে বসে গেছি। আমরা তাকে গ্রেফতারের দাবি জানাই প্রশাসনের কাছে।

কালকিনি থানার ওসি মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দোকান খুলে দেখি কোন জিনিসপত্র নেই। বরুন সমস্ত মালামাল নিয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে কালকিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, আমরা দোকানটিকে সিলগালা করে দিয়েছি। তবে গ্রাহকদের তথ্য অনুসারে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে ওই স্বর্ণকার বরুন কমপক্ষে ১০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তার নাম্বার ট্রাকিং দিয়ে তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।






News Room - Click for call