Main Menu

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে শ্রমিক সংকটে কৃষকেরা

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় শুরু হয়েছে বোরো ধান কাটা।
উপজেলার আংশিক জমিতে ধান কাটা শুরু হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে পুরোদমে শুরু হবে ধান কাটা ও মাড়াই উৎসব। তবে গত বছরের মতো এবারও বোরো ধান কাটা শ্রমিকের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। চড়াদামেও মিলছে না ধান কাটা শ্রমিক। শ্রমিক না পাওয়া গেলে জমির ধান জমিতেই থেকে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন কৃষকেরা।
এদিকে, চৈত্র মাসের শুরু থেকেই একের পর এক কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টি লেগেই আছে।তার সাথে ফণী নামক ঝড়েও তীব্র ক্ষতি সাধন করেছে। ফলে কষ্টার্জিত ফসল কেটে ঘরে তোলা নিয়েও শঙ্কা এবং উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় রয়েছেন গরীব কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে ১৩ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, মাঠে মাঠে সোনালী ফসল। ধান কাটা ও মাড়াই নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকরা। তবে ধান কাটা ও মাড়াই শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে ধান ঘরে তোলা নিয়ে কৃষকরা শঙ্কা আর হতাশায় ভূগছেন। দু’চারজন শ্রমিক পাওয়া গেলেও দৈনিক ৬শ’ থেকে সাড়ে ৮ শ’ টাকা করে মজুরী দিতে হচ্ছে। এতে কৃষকের খরচের টাকাই উঠবে না বলে জানিয়েছেন অনেকে।
উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বোরো ধানের দাম তুলনামূলক খুবই কম। প্রকারভেদে প্রতি মণ ধান ৫ ’শ টাকা থেকে সাড়ে ৬’শ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়নের শিল্টা গ্রামের কৃষক সাফায়েত মোল্যা বলেন, ‘আমি ১০ বিঘা জমিতে এবার বোরো ধানের আবাদ করেছি। যার ৮ বিঘা জমির ধান পুরোদমে পাক ধরেছে। কিন্তু ধান কাটার কৃষাণ পাচ্ছি না। আবহাওয়া ভাল থাকতে কেটে ঘরে তুলতে না পারলে বড় ধরণের ঝড়-বৃষ্টি হলে সব আশা মাটি হয়ে যাবে।’
কৃষক বাবু মোল্যা, নান্নু মোল্যা ও আবু-হুজাইফা জানান, ধান কাটা একজন শ্রমিককে তিনবেলা খাবারসহ দৈনিক ৭শ’ থেকে সাড়ে ৮ শ’ টাকা মজুরী দিতে হচ্ছে। অথচ বাজারে একমন ধান ৫শ’ থেকে সাড়ে ৬শ’ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
কাশিয়ানী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রসময় মন্ডল বলেন, ‘কৃষকদের মাঝে কৃষি উপকরণ বিতরণ, প্রশিক্ষণ ও মাঠ পর্যায়ে পরামর্শ প্রদান করে কৃষকদের সার্বিক সহায়তা করায় বোরো আবাদে পোকা-মাকড়ের আক্রমণ হয়নি। এ বছর বড় ধরণের কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে বলে আশাবাদী।’





News Room - Click for call