Main Menu

সন্ত্রাস দমনে সেনা মোতায়েন করল দ. আফ্রিকা

দক্ষিণ আফ্রিকার বন্দর নগরী কেপ টাউনে সন্ত্রাসীদের সংঘবদ্ধ সহিংসতা দমনের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে সরকার।

অবৈধ অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারে পুলিশের পাশাপাশি বাহিনীটি কাজ করবে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেকি চেলে। শহরটির সহিংসতা কবলিত বিভিন্ন অংশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ জন নিহতের পর এই সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিল কর্তৃপক্ষ।

বিশ্লেষকদের মতে, বন্দর নগরী কেপ টাউনের সংঘবদ্ধ সহিংসতার এই সমস্যা গত কয়েক দশকের পুরনো। সম্প্রতি প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রুপগুলোর মধ্যে প্রতিশোধমূলক ‘গ্যাং’ হামলা বেড়ে যাওয়ার ফলে সমস্যাটি আরও প্রকট হয়েছে বলে দাবি তাদের।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, চলমান সহিংসতার কারণে শহরের হ্যানোভার পার্ক, বন্তেহুয়েল, ডেলফ, ফিলিপ্পি ইস্ট অঞ্চলে পুলিশের পাশাপাশি অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তারা বর্তমানে অঞ্চলগুলোতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান পরিচালনা করছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) স্থানীয় গণমাধ্যম ‘নিউজ২৪ রিপোর্টস’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেকি চেলে বলেন, শহরের জনগণের কথা বিবেচনা করে তাদের নিরাপত্তার নিশ্চিত করতে আমাদের অসামান্য পদক্ষেপের অংশ হিসেবে এই সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমরা প্রতিটি বাড়িতে যাব। সব অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করব।’

সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যেসব অপরাধীদের খুঁজছি; অভিযানে অবশ্যই তাদের গ্রেফতার করা হবে। এবার জামিনে থাকা সব অপরাধীদেরও আটক করা হবে। আমাদের এই অভিযানের লক্ষ্য হবে রাষ্ট্রের কর্তৃত্ব নিশ্চিত করা।’

সেনা মোতায়েনের মেয়াদ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘অভিযানে সেনা সদস্যদের নেতৃত্বে থাকবে পুলিশ। গত মে মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনেও সেনাবাহিনী ঠিক একইভাবে দায়িত্ব পালন করেছে। আপাতত তিন মাসের জন্য হলেও পরে এই সেনা মোতায়েনের মেয়াদ বাড়ানো হতে পারে।’






News Room - Click for call