Main Menu

বেইজিংয়ে প্রধানমন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা

চীনে পাঁচ দিনের সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মঙ্গলবার (২ জুলাই) দেশটির রাজধানী বেইজিংয়ে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।  

এর আগে মঙ্গলবার সকালে লিয়াওনিং প্রদেশের দালিয়ান ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) বার্ষিক সভায় অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে অংশগ্রহণ শেষে এয়ার চায়নার একটি বিশেষ চার্টার্ড ফ্লাইটে বেইজিং ক্যাপিটাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ৫ মিনিটে তিনি সেখানে পৌঁছান।

বেইজিং ক্যাপিটাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে প্রধানমন্ত্রীকে ফুলের তোড়া দিয়ে স্বাগত জানান চীনের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিং গাং। এ সময় চীনের সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যরা তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

লাল গালিচা সংবর্ধনা ও গার্ড অব অনার শেষে প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শোভাযাত্রাসহকারে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন ডাইয়াউতাইয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। বেইজিং সফরকালে তিনি এখানেই অবস্থান করবেন। বেইজিংয়ে এক নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও প্রধানমন্ত্রীর যোগদানের কথা রয়েছে।

শেখ হাসিনা ৪ জুলাই সকালে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এবং গ্রেট হল অব দ্য পিপল-এ বীরদের স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে তিনি চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন এবং গ্রেট হল অব দ্য পিপল-এ এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।
প্রধানমন্ত্রী গ্রেট হল অব দ্য পিপল-এ চীনা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া এক নৈশভোজে যোগ দেবেন। তিনি একই দিনে বিকালে সিসিপিআইটি’তে চীনা ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে বাণিজ্য বিষয়ক এক রাউন্ড টেবিল বৈঠকে যোগ দেবেন। ৫ জুলাই সকালে ‘প্যানগোয়াল ইনস্টিটিউশন’ নামে একটি চীনা থিঙ্ক ট্যাংক আয়োজিত অনুষ্ঠানে তার বক্তব্য দেওয়ার কর্মসূচি রয়েছে।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন ডাইয়াউতাইয়ে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী। একই স্থানে চীনা প্রেসিডেন্টের দেওয়া ভোজসভায়ও অংশ নেবেন তিনি।

চীনা কোম্পানিগুলোর নির্বাহী প্রধানরা শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে এবং তিনি এনপিসি লি ঝাংশু’র চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

সফর শেষে ৬ জুলাই স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় ঢাকার উদ্দেশে চীনের রাজধানী বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন প্রধানমন্ত্রী এবং একই দিনে বাংলাদেশ সময় বেলা ১টা ৩৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গত শুক্রবার বলেন, ‘২ থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত চীনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাঁচ দিনের সরকারি সফরকালে আলোচ্যসূচিতে রোহিঙ্গা ইস্যুটি প্রাধান্য পাবে। এ সময়ে বেইজিংয়ের সঙ্গে ঢাকা আটটি চুক্তি স্বাক্ষর করবে।’ এরপর বেইজিং রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।






News Room - Click for call