Main Menu

বেনাপোলে নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে ডুবে যাওয়া কিশোরের লাশ হলো

নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার ৭ ঘন্টা পর ইকরামুল ইসলাম (১২) নামে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। বেনাপোল ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে ব্যর্থ হওয়ার ৭ ঘন্টা পর খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল লাশটি উদ্ধার করে। বেনাপোল পোর্ট থানার ধান্যখোলা-ঘিবা জোড়া ব্রিজের নীচে কোদলা নদীতে ঘটনাটি ঘটে।

শনিবার বেলা ১ টার সময় কোদলা নদীতে সে বন্ধুদের সাঁতার কাটতে গিয়ে হারিয়ে যায়। নিহত ইকরামুল ইসলাম বেনাপোল পোর্ট থানার ধ্যান্যখোলা দক্ষিনপাড়া গ্রামের ইমামুল হকের ছেলে।

এদিকে কোদলা নদীর দুপারে কয়েক হাজার নারী পুরুষ উদ্ধার কাজ দেখার জন্য ভীড় জমিয়ে ছিলো। অপরদিকে স্বজনদের কান্নায় আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠে। ইকরামুলের মায়ের একটি আর্তনাত আমার ছেলেকে এনে দেও।

স্থানীয়রা জানায়, ইকরামুল, রনি ও হাবিবুল্লাহ কোদলা নদীর ব্রীজ থেকে লাফিয়ে সাঁতার কেটে দক্ষিন দিকে যায়। সেখান থেকে ফেরার সময় রনি ও হাবিবুল্লাহ ব্রীজের উপর উঠলেও ইকরামুল উঠতে পারেনি। এসময় তার বন্ধুরা দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে গ্রামের লোকজনদের খবর দেই। এরপর গ্রামের লোকজন এসে চেষ্টা করে তাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

আজিজুল নামে ঘিবা গ্রামের এক যুবক বলে আমরা হারিয়ে যাওয়া কিশোরকে উদ্ধার করতে না পেরে বেনাপোল ফায়ার সার্ভিস ইউনিটকে খবর দেই।

বেনাপোল ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট প্রধান তৌহিদুর রহমান সুমন বলেন, নদীতে সামান্য স্রোত থাকায় আমরা লাশটি উদ্ধার করতে ব‍্যর্থ হয়। পরে খুলনা থেকে ডুবুরি দল এসে সন্ধ্যা ৭ টার সময় ইকরামুলের লাশটি উদ্ধার করেছে।






News Room - Click for call