Main Menu

সাবেক স্ত্রীকে নিয়ে প্রোপাগান্ডা, মামলা করবেন অপূর্ব

কুরুচিপূর্ণ ও মিথ্যা খবর প্রকাশের অভিযোগে ‘কিছু ভুঁইফোড় অনলাইন পত্রিকার’ বিরুদ্ধে মামলা করতে যাচ্ছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) দুপুরে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এ কথা জানান তিনি। 
ফেসবুক পোস্টে অপূর্ব লিখেছেন, গত দুইদিন ধরে দেখা যাচ্ছে কিছু ভুঁইফোড় অনলাইন পত্রিকা কোনও ধরনের তথ্য প্রমাণ ছাড়াই আমার সাবেক স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতি এবং আমার বিচ্ছেদের ব্যাপারে অত্যন্ত কুরুচিপূর্ণ মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। যা আমার এবং অদিতির জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর। আমি আগেও বলেছিলাম, অদিতির সঙ্গে আমি এখন সাংসারিক জীবনে না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা। সুতরাং অদিতির সম্মান নিয়ে বা অদিতির নামের সঙ্গে জড়িয়ে তৃতীয় কারো নাম নিয়ে যে বা যারা কোনো ধরনের নোংরা খেলায় মাতবে এদের কাউকেই আমি ছেড়ে কথা বলব না।
আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে অপূর্ব লিখেন, গোয়েন্দা সংস্থার বরাত দিয়ে দেশের একজন দুর্নীতিবাজের সঙ্গে আয়াশের মাকে (অপূর্বর সাবেক স্ত্রী) জড়িয়ে মিথ্যা এবং কাল্পনিক ঘটনা প্রচারের জন্য দেশের একজন সুনাগরিক হিসেবে তীব্র প্রতিবাদ করছি। শুধু প্রতিবাদই না, আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের ঘটনা নিয়ে এ ধরনের নোংরা মিথ্যাচার ছড়ানোর দায়ে এসব পত্রিকার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি, যা আজকালের ভেতরে সম্পন্ন হবে। যে বা যারা এই নোংরা খেলার সঙ্গে জড়িত তাদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনব।
গোয়েন্দা সংস্থার নাম ভাঙ্গিয়ে অদিতি এবং আমাকে জড়িয়ে এই ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার চালানো অনলাই পত্রিকাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য আমি আইন প্রয়োগকারী সংস্থাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। সেই সাথে আবারো বলছি এ ধরনের কুরুচিপূর্ণ মিথ্যা কল্পকাহিনী ছড়ানোর দায়ে আমি ওই সব অনলাইন পত্রিকার বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। আমি আরও স্পষ্ট ভাষায় জানাতে চাই, যে বা যারা এ নোংরা খেলার সাথে জড়িত তাদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করে আমি আইনের আওতায় আনব।
মূলধারার গণমাধ্যমের প্রতি দাবি রেখে অপূর্ব আরও লেখেন, আমি আশা করব মূলধারার গণমাধ্যমগুলো এ ব্যাপারে সত্য প্রকাশ করে আমাকে সহায়তা করবেন। কারণ দীর্ঘ সময় মিডিয়াতে কাজ করার সুবাধে তাদের কাছে আমার এই দাবি থাকতেই পারে।
২০১১ সালের ২১ ডিসেম্বর নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন অপূর্ব। এটি তার দ্বিতীয় বিয়ে। এ সংসারে জায়ান ফারুক আয়াশ নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে। কিন্তু গত মে মাসে দীর্ঘ ৯ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানেন এ দম্পতি।





News Room - Click for call