Main Menu

ফকিরহাটে ব্যবসায়ী শেখ সৈয়দ এর বিরুদ্ধে থানায় চাঁদাবাজির অভিযোগ

বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার ইট-বালু ব্যবসায়ী শেখ সৈয়দ আলীর (৩০) এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও চাদাবাজির অভিযোগে ফকিরহাট মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

সূত্র জানায়, আনন্দ টেলিভিশন ও জাতীয় দৈনিক গোপালগঞ্জ বার্তার বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক আমাদের সময়, দৈনিক নওয়াপাড়া পত্রিকার ফকিরহাট উপজেলা প্রতিনিধি শেখ শিহাব উদ্দিন রুবেল কে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ও হিংসান্বিত হয়ে সমাজে তার সন্মান ক্ষুন্ন করতে উদ্ধত হয়। ফকিরহাট বাজারে বিস্মিল্লাহ ট্রেডার্স নামে ইট, বালু, খোয়া, সিমেন্ট ব্যবসার আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে সমাজের বিভিন্ন শ্রেনীর সম্মানীয় লোকদের ফেজবুকের মাধ্যমে মান সম্মান হানী করা সহ তাদের কাছ থেকে আর্থিক উৎকোচ নেওয়া তার নেশা ও পেশা।

গত ইং ৩১/০৫/১৯ তারিখ তার নিজ নামীয় ফেজবুক ঝশ ঝুবফ এর আইডি ব্যবহার করে একটি ভিত্তিহীন মিথ্যা ষ্ট্যাটার্স দেওয়াকে কেন্দ্র করে ফকিরহাট মডেল থানায় গত ১লা জুন একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে জানাযায়, অভিযুক্তকারী সাংবাদিক সৈয়দ শিহাব উদ্দিন রুবেল কে নগদ টাকা চাঁদা দাবী করে বলেন, এক ঘন্টার মধ্যে টাকা না দিলে আপনার নামে আরও হয়রানিমূলক এরকম ষ্ট্যাটার্স দিবে মর্মে হুমকি প্রদান করে।

স্থানীয়রা জানায়, এলাকায় সে ফোন রেকর্ড ওরফে ফেজবুক সাংবাদিক নামে পরিচিত। সাংবাদিকতার নাম ব্যবহার করে ভূয়া কাগজপত্র তৈরীর মাধ্যমে অন্যের জমি বিক্রয় করে মোটা অংকের নগদ অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। এমনকি সে জমি দখল করে ভূমি দস্যু হিসাবে এলাকায় খ্যতি অর্জন করেছে।

উল্লেখ্য যে, উক্ত ষ্ট্যাটার্স এর বিষয়ে জনসাধারন কোন রুবেল জানতে চাইলে ফেজবুকের প্রোফাইলের লিংটি কপি করে সবার সামনে দিয়েছে যাতে জনসাধারন তাকে সহজেই চিনতে পারে। অভিযুক্ত ব্যক্তি ডিভাইজের মাধ্যমে অনলাইনে ফেজবুক ব্যবহার করে রুবেল এর নামে মিথ্যা, হয়রানী ও সম্মানহানী করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপরাধ করেছে।

এ ব্যাপারে মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জাহিদ শেখ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার পংকজ রায় বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি এবং তদন্ত সাপেক্ষ্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।






News Room - Click for call