Main Menu

বরিশালের মীরগঞ্জ – মুলাদী খেয়া ও ফেরীঘাটে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ায় দু’জনকে কারাদণ্ড

বরিশালের মীরগঞ্জ ও মুলাদী খেয়া ঘাটে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার দু’জনকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন যোথ ভাবে মুলাদী ও বাবুগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো.জাকির হোসেন ও সুজিত হাওলাদারের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
শনিবার (১জুন) দুপুর ২.৩০ এর দিকে বাবুগঞ্জ ও মুলাদী উপজেলার মীরগঞ্জ-মুলাদী খেয়া ও ফেরীঘাটে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার অপরাধে জেলা পরিষদের কেয়ারটেকার সহ দু’জনকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। শনিবার দুপুরে বাবুগঞ্জ ও মুলাদী দুইটি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো.জাকির হোসেন ও সুজিত হাওলাদারের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত এই দণ্ডাদেশ দেন।
দণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হচ্ছেন, বরিশাল জেলা পরিষদের কেয়ারটেকার ওয়াহিদুজ্জামান এবং মীরগঞ্জ গ্রামের হাসেম সাজোয়ালের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম।
বাবুগঞ্জ ও মুলাদী উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, খেয়াঘাটের যাত্রী জনপ্রতি ৭ টাকার ভাড়া ১০ টাকা, মোটরসাইকেলের ১৬ টাকার ভাড়া ৩০ টাকা এবং ফেরিঘাটে ১০০ টাকার গাড়ির ভাড়া ১৬০০ টাকা আদায় করা হচ্ছিল।
এই খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে দুই উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালিত হয়। তখন জেলা পরিষদের কেয়ারটেকার ওয়াহিদুজ্জামান এবং রিয়াজুল ইসলামকে হাতেনাতে আটক করা করে।
পরবর্তীতে তাদের উভয়কে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তুলে কেয়ারটেকারকে ১৫ ও রিয়াজুল ইসলামকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাণ্ড দেওয়া হয়।
অতিরিক্ত অর্থ আদায় ও হয়রানি প্রতিরোধে মিরগঞ্জ ঘাটে মুলাদী ও বাবুগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের যৌথ তদারকি চলছে। দুই জনকে জেলে পাঠানো হয়েছে। অভিযান চলবে।





News Room - Click for call