Main Menu

মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সাংবাদিক মাইনুল ইসলামকে মিথ্যা মামলায় আটকের প্রতিবাদে তীব্র ক্ষোভ

মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সফল সংগঠক, বাংলাদেশ সাংবাদিক ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি, দৈনিক লাখোকণ্ঠের নিজস্ব প্রতিনিধি ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারাদেশের সম্পাদক, সিনিয়র সাংবাদিক মো: মাইনুল ইসলামকে মিথ্যা ও ভিক্তিহীন সরযন্ত্র মুলক জামায়াত সিবির চক্রের মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় আটকের প্রতিবাদে সারা দেশ ব্যাপি তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

গত ৩ রা জুলাই ভোর রাতে মিথ্যা বানোয়াট, জামায়াত সিবির চক্রের ষড়যন্ত্র ও প্রতিহিংসা মূলক মিথ্যা মামলায় আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার নিজবাসা থেকে জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলে পুলিশ তাকে ভোলা জেলার চরফ্যাশন থানায় নিয়ে যায়। বর্তমানে তিনি চরফ্যাশন থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন। তার পরিবারের আশংকা তাকে জামায়াত-শিবির চক্রের ইন্ধনে নির্যাতন করা হতে পারে।

জানা যায় আব্বাস নামে ভোলার চরফ্যাশন এলাকার এক প্রতারক ও জামায়াত-শিবির চক্রের সদস্য আব্বাস উদ্দিন সাংবাদিক মাইনুল ইসলামকে ভোলার এমপি আব্দুল্লাহ্ আল ইসলাম জ্যাকবের বিরুদ্ধে নানা রকম সংবাদ প্রকাশ করতে বলে কিন্তু পর্যাপ্ত তথ্য প্রমাণ না থাকায় তিনি তা করতে অস্বীকৃতি জানান ।

আর এ বিষয়টি কে কেন্দ্র করে প্রতারক আব্বাস ক্ষীপ্ত হয়ে একটি মামলা দায়ের করে ।

এ ঘটনায় এসএসপি গোপালগঞ্জ জেলা কমিটির সদস্য সচিব এম.আজমানুর রহমান তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, একজন পেশাদার সাংবাদিক, সফল সংগঠকের নামে এমন মিথ্যা হয়রানীমূলক মামলায় গোটা সাংবাদিক সমাজ স্তব্ধ।সাংবাদিকদের সাথে নিয়ে মাইনুল ভাইয়ের নিঃশ্বর্ত মুক্তি ও তার বিরুদ্ধে দায়ের কৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে তীব্র গণ আন্দোলন গড়ে তুলবো।

মাইনুল ইসলামের নামে এমন মিথ্যা মামলা ও আটকের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যামসহ গণমাধ্যামে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে । সারাদেশের নানা গণমাধ্যামে নিয়োজিত সাংবাদিকগণ মাইনুল ইসলামের মুক্তির জন্য সরকারের নিকট জোর দাবী জানান অন্যথায় তারা তীব্র আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন, এবং প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি বরাবর স্মারকলীপি দেয়ার প্রতিক্রিয়া চলমান রয়েছে।






News Room - Click for call