Main Menu

রাজৈরে সাংবাদিকদের মাধ্যমে পুলিশের কাছে মানব পাচারকারীর আত্মসমর্পণ

লিবিয়ায় মানব পাচার চক্রের সদস্য রেজাউল বয়াতী (৩৫) বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের মাধ্যমে রাজৈর থানায় আত্মসমার্পন করেছে। রেজাউল উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের আড়াইপাড়া গ্রামের হানিফ বয়াতীর ছেলে।

সংবাদিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ইউশিবপুর ইউনিয়নের উত্তর আড়াইপাড়া গ্রামের আমজেদ বেপারীর ছেলে লিবিয়ায় নিহত জুয়েলের ভাই আব্দুর রহিম বাদি হয়ে গত ৪ জুন রাজৈর থানায় একটি মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করে। এ মামলায় রেজাউলকে প্রধান করে তার বাবা-মা ও ভাইসহ ৪ জনকে আসামী করা হয়। দীর্ঘদিন পালিয়ে থেকে নিজের ভুল বুঝতে পারে রেজাউল। পরে সাংবাদিক ই.এইচ ইমনকে মুঠো ফোনে আত্মসমার্পণের জন্য মত প্রকাশ করলে তাকে সাংবাদিকরা থানায় নিয়ে যান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মজিদ রাসেল, সংবাদিক জেএম মাহমুদ ইব্রাহীম ও সাংবাদিক এম.এম আকাশ আহম্মেদ সোহেল প্রমুখ।

রেজাউল জানায়, আমার মা-বাবা ও ভাইদের মামলা দেওয়ার করনে আমি আইনের কাছে আত্মসমার্পন করেছি। আমি কোন দালাল নই। আমার এক ভাইও লিবিয়ার এ ঘটনায় মারা গেছে। আমিও মানব পাচারকারীদের বিরুদ্ধে একটা মামলা করেছি।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার শওকত জাহান বলেন, রাজৈর থানার ৭ নম্বর মানব পাচার মামলার প্রধান আসামী রেজাউল আইনকে শ্রদ্ধা জানিয়ে আত্মসমার্পণ করেছে। এজন্য তাকে এবং সাহায্যকারী সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানাই।






News Room - Click for call