Main Menu

সেই ইংল্যান্ডেই টাইগারদের ফাইনালে চান সেই ওয়ালশ

আপনি কি জানেন বাংলাদেশ দলের বর্তমান বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে সবশেষ বিশ্বকাপ খেলেছেন কবে? হয়তো অনেকেই জানেন, ১৯৯৯ এর বিশ্বকাপ। সেই আসরটি বসেছিল ইংল্যান্ডে।

৯৯ এর আসরে বাংলাদেশ দল প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করে। ওই আসরে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ালশের উইন্ডিজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল। ম্যাচটিতে ৪ উইকেট নিয়ে উইন্ডিজের জয়ে ম্যান অফ দ্য ম্যাচও হয়েছিলেন ওয়ালশ। সেই ওয়ালশই কিনা এখন বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ! একসময় টাইগারদের পরাজয়ে উল্লাস করা সেই ক্রিকেটারই এখন চান ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ফাইনাল খেলুক।

উইন্ডিজের সাবেক কিংবদন্তি বোলার ওয়ালশ কি কখনো কল্পনা করেছেন- ২০ বছর পর বাংলাদেশের বোলিং কোচ হবেন! কিন্তু দেখুন সময় মানুষকে কোথায় নিয়ে যায়। যেই ইংল্যান্ডের মাটিতে বাংলাদেশকে হারিয়েছিলেন তিনি, সেই ইংল্যান্ডেই এবারের বিশ্বকাপ। এবারের আসরে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা টাইগাররা যেন ফাইনাল খেলে এমন প্রত্যাশা ওয়ালশের।

আগামী ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপে টাইগারদের মহড়া শুরু। এই ম্যাচের আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ওয়ালশ। সেখানে তাকে ১৯৯৯ সালের সেই ঘটনা মনে করিয়ে দিলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘এটা বেশ অদ্ভুত একটা অনুভূতি।’

এ যাবত বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা বাংলাদেশে দলের মধ্যে এবারের দলটিই সেরা। বর্তমান দলে আছেন অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। বলা যায় দলের সবাই আছেন নিজেদের সেরা ছন্দে। তাই তো বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে দলকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ওয়ালশ। টাইগারদের বিশ্বকাপ মিশন নিয়ে পুরোপুরি ফোকাস করছেন এই ক্যারিবীয়ান। বলেন, ‘আশা করছি ভালো ক্রিকেট উপহার দিব আমরা। যদি কিছু চমক দিতে পারি সেটা হবে আমার জন্য ভীষণ গর্বের।’

ইংল্যান্ডের মাটিতে ম্যাচ জেতা সহজ হবে না বাংলাদেশের জন্য। কেননা এক মাঠের সাথে আরেক মাঠের পার্থক্য অনেক। আপাতত এসব নিয়ে কাজ করছেন ওয়ালশ- ‘ওভালের (মাঠ) সাথে কার্ডিফের পার্থক্য থাকবে আর সেটা দ্রুত বুঝে নিতে হবে। সেভাবেই গেমপ্ল্যান সাজাতে হবে, আমার বোলারদেরও সেভাবে প্রস্তুত করছি। ইংল্যান্ডে ধারাবাহিকতা আসল। কন্ডিশনের সাথে দ্রুত মানিয়ে নিতে হবে আমাদের।’

এবারের আসরে নতুন ফরম্যাটে এক দল আরেক দলের বিপক্ষে লড়বে; ফলে সেমি-ফাইনালে যেতে হলে প্রতিটি দলের বিপক্ষে জিততেই হবে টাইগারদের। ওয়ালশ বলেন, ‘টুর্নামেন্ট বড় হয়েছে। কোনো নির্দিষ্ট দলকে লক্ষ্য করে নয়, প্রতিটি ম্যাচকেই সমান গুরুত্ব দিয়ে খেলতে হবে। কোনো দলকেই সহজ ভাবার কারণ নেই।’

আগামী ১৭ জুন ওয়ালশের দেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেও ম্যাচ খেলবে সাকিব-তামিমরা। নিজ দেশের সঙ্গে টাইগারদের ম্যাচ, কীভাবে দেখেছেন ওয়ালশ- ‘আমি বলব ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভয়ঙ্কর দল। তাদের হালকাভাবে নেওয়ার ভুল করবে না কেউ।’

৫০০ টেস্ট উইকেট শিকারি ওয়ালশের একটাই স্বপ্ন বাংলাদেশ ফাইনাল খেলুক। সেই লক্ষ্যেই তিনি কাজ করছেন।






News Room - Click for call