Main Menu

হুয়াওয়ে স্মার্টফোনের সরবরাহ এক-চতুর্থাংশ কমে যাওয়ার আশঙ্কা

গুগলের ব্যবসায়িক সম্পর্ক আংশিক স্থগিতকরণ এবং মার্কিন নিষেধাজ্ঞা কারণে আগামী ছয় মাসের মধ্যেই হুয়াওয়ে বড় ধরনের ধাক্কা খাবে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান ফুবন রিসার্চ অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি অ্যানালিটিক্সের এক হিসাবে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

সেখানে বলা হয়েছে,গত বছরের তুলনায় চলতি বছর হুয়াওয়ের স্মার্টফোন সরবরাহ এক-চতুর্থাংশ কমে যাবে। এমনকি এ চীনা ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন আন্তর্জাতিক বাজার থেকে উধাও হয়েও যেতে পারে।

হুয়াওয়ে বর্তমানে ইউনিট সংখ্যা বিবেচনায় বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়িত হলে চলতি বছর কোম্পানির স্মার্টফোন সরবরাহ ৪ থেকে ২৪ শতাংশ পর্যন্ত কমে যেতে পারে।

আগামী ছয় মাসের মধ্যেই আন্তর্জাতিক বাজারে হুয়াওয়ের সরবরাহে উল্লেখযোগ্য টান পড়তে পারে বলে বেশ কয়েকজন বিশেষজ্ঞ অভিমত ব্যক্ত করেছেন। তবে এখনও অনেকে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন নিয়েই সন্দিহান। এজন্য তারা আগামী ছয় মাসে হুয়াওয়ের সরবরাহ হ্রাস নিয়ে সুনির্দিষ্ট পূর্বাভাস দিতে চান নি। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় চীনা প্রযুক্তি জায়ান্ট হুয়াওয়েকে কালো তালিকাভুক্ত করে। ফলে মার্কিন কোনো কোম্পানি হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক তৈরি বা বজায় রাখতে চাইলে ট্রাম্প সরকারের অনুমতি নিতে হবে। এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছে পণ্য ও সেবাদানকারী মার্কিনভিত্তিক অন্তত ২৫ শতাংশ প্রযুক্তি ও সরঞ্জাম সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। পাশাপাশি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও এর ভুক্তভোগী হবে। ইতোমধ্যেই গুগল এবং সফটব্যাংক গ্রুপের মালিকানাধীন চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এআরএম হুয়াওয়েকে সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া এবং পণ্য সরবরাহ স্থগিত রাখার ঘোষণা দিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ফুবন রিসার্চ অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি অ্যানালিটিক্সের লিন্ড সুই বলেন, গুগল যদি হুয়াওয়েকে সেবা না দেয়,তাহলে আগামী বছরের মধ্যে হুয়াওয়ে পশ্চিম ইউরোপের বাজার সম্পূর্ণ হারাতে পারে। এছাড়া আগামী বছর হুয়াওয়ের আন্তর্জাতিক সরবরাহ ২৩ শতাংশ কমবে। তবে তার ধারণা চীনের বাজারের ওপর নির্ভর করে হুয়াওয়ে অস্তিত্ব রক্ষা করতে পারবে।

খবর রয়টার্স






News Room - Click for call