Main Menu

আপন ভাইকে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ

নাটোর শহরতলীর জংলী এলাকায় ছোট ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে ওমর ফারুক (৪৭) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পর ঘাতক ছোট ভাই স্বেচ্ছায় পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেন।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফারুকে মৃত্যু হয়। একই দিন বিকালে ছোট ভাই শাজাহান আলীর ছুরির আঘাতে আহত হন তিনি।

নিহত ওমর ফারুক ও ঘাতক শাজাহান আলী জংলী এলাকার প্রয়াত সিদ্দিক আলীর ছেলে।

জানা যায়, নিহতের ভাই শাজাহান মঙ্গলবার বিকালে জংলী মোড়ে একটি দোকানে বসা অবস্থায় পেছন থেকে ওমর ফারুকের গলায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এবং স্থানীয়রা ফারুককে নাটোর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার  অবনতি হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৯টায় তার মৃত্যু হয়।

নাটোর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী জালাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।






News Room - Click for call