Main Menu

পুলিশ সদস্য রশীদ লেখক হিসাবে আত্মপ্রকাশ ”আহ্বান” পাওয়া যাবে বই মেলায়

শুধু দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সীমাবদ্ধ না থেকে, লেখক/সাহিত্যিক, কবি, গীতিকার ও সুরকার হিসেবে, আত্মপ্রকাশ পেয়েছেন মাদারীপুরে কর্মরত বাংলাদেশ পুলিশ সদস্য এস,আই শরীফ আব্দুর রশীদ, তিনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানাধীন বড় পারুলিয়া গ্রামের মৃত আশরাফ আলী শরীফের পূত্র।

একান্ত সাক্ষাতকালে লেখক এস,আই রশীদ বলেন, আমি ছোটবেলা থেকে কবিতা ও গান লেখার প্রতি অনেক আগ্রহী ছিলাম। সময় স্বল্পতা এবং পারিবারিক কারণে ছাত্রজীবনে পূর্ণাঙ্গভাবে আমার লেখা সম্ভব হয়নি।পরবর্তীতে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে চাকরি নেওয়ার পর, হাটি হাটি পা পা করে, প্রথমে ২০০১ সালে “তুমিও দুঃখ দিলে ” শিরোনামে একটি বই প্রকাশ করি।, আমি বর্তমানে ঢাকা বিভাগের মাদারীপুর জেলায় কর্মরত আছি। আবারো ২০২০ সালে” আহব্বান” নামক একটি কাব্যগ্রন্থ কিংবদন্তী পাবলিকেশন হতে প্রকাশিত হয়েছে।

”আহ্বান”- এ কিসের আহ্বান করা হয়েছে? এই প্রশ্নের জবাবে লেখক, এস.আই রশীদ বলেন, বর্তমান দেশের সার্বিক পরিস্থিতি, মানুষের মৌলিক চাহিদা, দেশের মানুষের নৈতিক অবক্ষয়, সমাজের অনিয়ম-দুর্নীতি, কিভাবে হচ্ছে তার কিছু উদাহরণ তুলে ধরছি।, এবং এই পরিস্থিতি থেকে, একজন মানুষ কিভাবে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরে আসতে পারে, তার নিদর্শন আলোকপাত করেছি।সর্বোপরি সকলকে আহ্বান করেছি দূর্নীতি-অনিয়ম না করে, কিভাবে সুস্থ ধারায় সুস্থ সমাজে ভালোভাবে বেঁচে থেকে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করা যায়।

তিনি আরো বলেন, দেশের যুবসমাজ ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে, সেখান থেকে তারা কিভাবে পরিত্রাণ পাবে, আমার দৃষ্টিকোণ থেকে পরিত্রাণের দিকনির্দেশনা দিয়ে, সুস্থ ধারায় ফিরে আসার আহব্বান করেছি।

সাধক আব্দুর রহিম খাঁ বুধোর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একজন মানুষ সমাজে যে স্তরে থাকুক না কেন, কোন মানুষ যদি লেখক হয়, কোন মানুষ যদি সাহিত্যিক হয়, কোন মানুষ যদি সাধক হয়, কোন ব্যক্তি যে কোন বিষয়ে সাধনার করে সে কখনোই খারাপ প্রকৃতির হয়না। একজন কবি/লেখক ও সাধক, কারণ সাধনা করেই তো লিখতে হয়। মূলত যারা লেখক, সাহিত্যিক, তাদের হৃদয় কমল থাকে, তাদের আত্মা শুদ্ধ থাকে, তারা সবসময় মানুষের মঙ্গল কামনায় ধ্যান করতে থাকে। কখনো তাদের দ্বারা মানুষের অমঙ্গল হয় না।

সর্বশেষে সাধক বলেন, পুলিশ সদস্য হোক আর যাই হোক না কেন, তিনি অত্যন্ত ভালো মনের মানুষ, তিনি মানুষের মত মানুষ,। মনে পড়ে গেল যে সিংহ হয়ে জন্ম নিয়ে রুগ্ন মুরগির মতো ঘুমিয়ে থেকে কি লাভ? যদি মানুষ মানুষের উপকার না করতে পারে! মানুষকে ভালোবাসতে না পারে, তাহলে মানবজাতির মনুষত্ব কোথায়? মানব জাতি হিসেবে জন্ম নেওয়ার কোন সার্থকতা নেই যদি না মানব এর কাজে আসে । এসআই যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন অবহেলিত সুবিধাবঞ্চিত এবং সমাজের অন্যায়-অনিয়ম থেকে বিরত থাকতে সুস্থ ধারায় ফিরে আনতে তার লেখা “আহ্বান “নামক কাব্যগ্রন্থটি যুগান্তকারী হয়ে থাকবে এবং জাতির মঙ্গল সাধনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। বইটি অমর একুশে বই মেলার ২৯৩ নং স্টলে পাওয়া যাচ্ছে, এছাড়া রকমারীতে/ কিংবদন্তী পাবলিকেশন এর মাধ্যমে প্রি-অর্ডার করে সংগ্রহ করা যাবে।






News Room - Click for call