Main Menu

যে লজ্জা এখন বিজয়ের একার

প্রতিভাবান ক্রিকেটারের তকমা নিয়েই ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গী হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে এনামুল হক বিজয়ের। অভিষেক ম্যাচে ৪১ রানের ইনিংস খেলে বুঝিয়েছিলেন, থেমে যেতে আসেননি। এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে প্রমাণ করেছিলেন নিজেকে। তবে প্রমাণ করেই যেন হারিয়ে গেছেন বিজয়। বাজে পারফরম্যান্সের কারণে তামিম-লিটন-সৌম্যদের ভিড়ে জাতীয় দলেও এখন তেমন সুযোগ মেলে না তার।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্যাট হাতে ধারাবাহিক না হতে পারলেও ঘরোয়া লিগগুলোতে বিজয়কে নিয়মিতই রানের ফোয়ারা ছোটাতে দেখা যায়। বিপিএল-ডিপিএলে পারফর্ম করে মাঝে মাঝে তো তাকে জাতীয় দলে না নেওয়াকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে দেন তিনি। তবে লিগেও যেন সুদিন হারিয়ে ফেলেছেন বিজয়। এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলে জ্বলে উঠতে ব্যর্থ হয়েছেন। ১৩ ম্যাচে এক হাফসেঞ্চুরিতে রান করেছেন মাত্র ১৯৮।

এলিমিনেটরের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে শূন্য রানে আউট হয়ে দলকে বিপদে ফেলেন এনামুল। আসরে ১৩ ম্যাচে এ নিয়ে তিনবার শূন্য রানে আউট হলেন বিজয়। এবারের আসরে তিনিই সর্বোচ্চবার ‘ডাক’ মেরেছেন। শুধু এবারের আসর নয় বিপিএলের ইতিহাসেই সর্বোচ্চ ডাকের লজ্জার রেকর্ডটি নিজের করে নিয়েছেন তিনি। টুর্নামেন্টের চলতি আসর শুরু করেন ৮টি ডাক নিয়ে। এ আসর শুরুর আগে ১০ ‘ডাক’ নিয়ে সর্বোচ্চ ডাকের মালিক ছিলেন ইমরুল কায়েস। লিগ পর্বের ১৭তম ম্যাচেই ইমরুলের লজ্জায় ভাগ বসান বিজয়। চট্টগ্রামের বিপক্ষে ১১ বারের মতো শূন্য রানে আউট হয়ে সে লজ্জার নিজের একার করে নিলেন বিজয়। লজ্জার এ রেকর্ড গড়তে বিজয়ের লেগেছে ৮০ ইনিংস। ৯ ‘ডাক’ নিয়ে এ তালিকায় তিন নম্বরে আছেন সাব্বির রহমান।






News Room - Click for call